Online এ একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির বিস্তারিত তথ্য

২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের এইচএসসি বা একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির কার্যক্রম শুরু হবে আগামী ১৩ই মে ২০১৮। সারা বাংলাদেশের সব কলেজের এইচএসসি /  একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি ২০১৮- প্রকাশ করেছে শিক্ষা মন্ত্রানালয়। এবছর কলেজ ও মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠানে একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের মেধার ভিত্তিতে ভর্তি করা হবে। মেধার ভিত্তিতে ভর্তির পর অতিরিক্ত ছাত্রছাত্রীদের অগ্রাধিকার কোটায় ভর্তি করা হবে। মেধা তালিকায় নির্বাচিত হওয়ার পরও ভর্তি নিশ্চিত না হলে শিক্ষার্থীরা আবার আবেদন করতে পারবেন। গত ৭ই মে  শিক্ষা মন্ত্রণালয় একাদশ শ্রেণী ভর্তির চূড়ান্ত নীতিমালা ঘোষণা করে।

এইচ এস সি ভর্তি ২০১৮ প্রক্রিয়া শুরু হবে ১৩ই মে থেকে

একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির বিস্তারিত

গত বছর একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির ক্ষেত্রে, ছাত্রছাত্রীদের ৮৯ শতাংশ মেধার ভিত্তিতে ভর্তি করা হয় এবং ১১ শতাংশ কোটায় ভর্তি করা হয়। কিন্তু এই বছর একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি ১০০ শতাংশ মেধার উপর ভিত্তি করে করা হবে। এ ছাড়াও মুক্তিযোদ্ধাদের ৫ শতাংশ, বিভাগীয় ও জেলা সদর দফতরের ৩ শতাংশ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপবিভাগীয় পদ ২ শতাংশ, বিকেএসপি ০.৫ শতাংশ এবং প্রবাসী ০.৫ শতাংশ। কিন্তু এই কোটায় কোনও উপযুক্ত প্রার্থী পাওয়া না গেলে এই আসনে কাউকে ভর্তি করানো যাবে না।

নীতিমালা অনুযায়ী গতবছরের মতো এবছরও অনলাইন এবং এসএমএস এর মাধ্যমে ভর্তির জন্য আবেদন করা যাবে। একজন শিক্ষার্থী সর্বনিম্ন ৫টি এবং সর্বোচ্চ ১০টি কলেজ বা সমমানের প্রতিষ্ঠানে hsc ভর্তির আবেদন করতে পারবে। অনলাইনে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদনের জন্য প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে ১৫০ টাকা টেলিটক মোবাইল এর মাধ্যমে জমা দিতে হবে। এছাড়া শিক্ষার্থীরা মোবাইল ফোনে এসএমএস এর মাধ্যমে প্রতি এসএমএসে একটি কলেজে আবেদন করতে পারবেন। এই জন্য শিক্ষার্থীকে প্রতি কলেজের জন্য ১২০ টাকা টেলিটক মোবাইল এর মাধ্যমে জমা দিতে হবে। উল্লেখ্য যে অনলাইনে এবং এসএমএস মিলে একজন শিক্ষার্থী সর্বনিম্ন ৫টি এবং সর্বচ্চ ১০টি কলেজে ভর্তির আবেদন করতে পারবেন।

 

এইচএসসি ভর্তি ২০১৮ আবেদন প্রক্রিয়াঃ

 

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করার জন্য প্রত্যেক শিক্ষার্থী ২টি পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারবেন (১) এসএমএসের মাধ্যমে এবং (২)ইন্টারনেটের মাধ্যমে

(১) এসএমএসের মাধ্যমে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন

প্রথম ধাপ: মোবাইলের মেসেজ অপশনে যান

দ্বিতীয় ধাপ: এরপর CAD <স্পেস> কলেজ EIIN <স্পেস> ভর্তিচ্ছুক গ্রুপের প্রথম লেটার লিখুন <স্পেস> আপনার বোর্ডের প্রথম 3 টি অক্ষর <স্পেস> এসএসসি রোল নম্বর <স্পেস> এসএসসি / সমমানের পরীক্ষার বছর পাস <পছন্দের শিফট> Shift <স্পেস> ভার্সন <স্পেস> কোটা পাঠিয়ে 16২২২ তে পাঠিয়ে দিন

তৃতীয় ধাপ: সফলভাবে আবেদন করার পরে আবেদনকারী PIN নম্বর সহ ফিরতি এসএমএস পাবেন। এর পর আপনাকে পেমেন্ট সম্পর্কিত তথ্য দিতে হবে ফিরতি এস এম এসে

চতুর্থ ধাপ: আপনার টেলিটক মোবাইলে নির্দিষ্ট পরিমানের বেশি টাকা রিচার্জ করুন এবং এসএমএস লিখুন:

CAD <স্পেস> YES <স্পেস> PIN নম্বর <স্পেস> যোগাযোগের মোবাইল নং এবং 16২২২ তে পাঠান

পঞ্চম ধাপ: আপনার মোবাইলে ফিরতি এসএমএস পাবেন, যেখানে প্রার্থীর নাম এবং ট্র্যাক নাম্বার উল্লেখ থাকবে।

** অনলাইনে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদনে প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে ১৫০ টাকা দিতে হবে। এছাড়া শিক্ষার্থীরা মোবাইল ফোনে এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদনের জন্য প্রতি কলেজের জন্য ১২০ টাকা জমা দিতে হবে। উল্লেখ্য যে অনলাইনে এবং এসএমএস মিলে একজন শিক্ষার্থীকে সর্বচ্চ ১০টি কলেজে ভর্তির আবেদন করতে পারবেন। এসএমএসে আবেদন ফি জমা দেয়ার পরে শিক্ষার্থীদের তাদের নিজস্ব PIN কোড সংরক্ষণ করতে হবে কারণ এটি পরবর্তী ভর্তি প্রক্রিয়ার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

** একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদনের ক্ষেত্রে যদি উক্ত কলেজের কোন শিফট না থাকে তবে “N” লিখুন, এছাড়া আপনি যদি কোন কোটায় না পরেন তবে এসএমএসে কোটা টাইপ করার প্রয়োজন নেই, ফাঁকা রাখুন।

 

 

 

এই বিভাগের আরো পোষ্ট সমূহ

Share

আমাদের পোষ্টগুলো ফলো এবং শেয়ার করতে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অনুসন্ধান ডটকম © 2016 Developed By - RUPONTI IT WORLD